• ২০শে জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ , ৫ই শ্রাবণ, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ , ১৪ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি

মেঘনা ক্লাউড হোস্ট স্মার্ট বাংলাদেশ সাইবার সিকিউরিটি সেমিনার অনুষ্ঠিত

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত নভেম্বর ১৭, ২০২৩
মেঘনা ক্লাউড হোস্ট স্মার্ট বাংলাদেশ সাইবার সিকিউরিটি সেমিনার অনুষ্ঠিত

নভেম্বর ১৬,২০২৩ ইং

মেঘনা ক্লাউড, বিডিসিসিএল এর টায়ার-4 ডেটা সেন্টারে অবস্থিত বাংলাদেশের প্রধান ক্লাউড পরিষেবা, গর্বিতভাবে “স্মার্ট বাংলাদেশ সাইবার সিকিউরিটি” ইভেন্টের আয়োজন করেছে, যা দেশের সাইবার নিরাপত্তা পরিকাঠামোকে শক্তিশালী করার লক্ষ্যে একটি যুগান্তকারী উদ্যোগ।

রাজধানীর মহাখালী ব্র্যাক ইন-সেন্টার ইনডোর অডিটোরিয়াম এর ৩য় তলায় অনুষ্ঠিত সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন আইসিটি বিভাগের সচিব সামসুল আরেফিন। এ সময় বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের (বিসিসি) নির্বাহী পরিচালক রণজিৎ কুমার,ডিএসএ এর মহাপরিচালক আবু সাঈদ মো. কামরুজ্জামান এবং জেননেক্সটের চেয়ারম্যান তৌহিদুল ইসলাম চৌধুরী। সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন জেননেক্সটের প্রধান পরিচালনা কর্মকর্তা সাইফ রহমান। সেমিনারে সভাপতিত্ব করেন বিসিসিএল এর ব্যবস্থাপনা পরিচালক আতাউর রহমান।

প্রধান অতিথি (আইসিটি) বিভাগের সচিব শামসুল আরেফিন তার বক্তব্যে বলেন ,যখন আমরা ‘পেপারলেস’ এবং ক্যাসলেস হয়ে যাবো তখন সবকিছু ক্লাউডেই থাকবে।ভবিষ্যতের সকল উন্নয়ন পরিকল্পনা ডাটা ড্রিভেন উপায়ে নিতে হবে।এসব ডাটা যেখানেই রাখি না কেন নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে।নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে না পারলে এই ডাটাই আমাদের বিরুদ্ধে ব্যবহৃত হবে।সরকারি ডাটা নিশ্চিন্তে মেঘনা ক্লাউড একটি ইতিবাচক সমাধান হতে পারে।মেঘনা ক্লাউডের সেবাগুলো সবার সাথে বিনিময় করার জন্যই আজকের সেমিনার।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল এর নির্বাহী পরিচালক রঞ্জিত কুমার বলেন সিআইআই গুলোকে একটা নির্দিষ্ট গাইড লাইনের মধ্যে চলতে হয় তবে এতদিন যা করেছি তা শৈশবকালীন সময় ছিল।এখন আর শৈশব নেই।তাই আগের মতো ভুল করার আর সুযোগ নেই।ভুল শুধরে সঠিক পথে চলতে পারলে ২০৪১ সাল নাগাদ স্মার্ট বাংলাদেশ অর্জিত হবে।

জেননেক্সটের চেয়ারম্যান তৌহিদুল ইসলাম চৌধুরী বলেন, ডাটা ব্রিচ একধরনের দুর্ঘটনা। আমাদের ডাটা যেভাবে বাড়ছে তেমনি দুর্ঘটনার ঝুঁকি ও বেশী বাড়ছে।এটা প্রতিহত করতে হলে আমাদের যথাযথ প্রস্তুতি নিতে হবে।পাশাপাশি এটা দেশেই নির্মিত সার্ভার,দেশেই থাকবে।ফলে এখানে ডাটা হোস্ট করার মাধ্যমে দেশের টাকা দেশে থাকবে।প্রচুর বৈদেশিক মুদ্রার সাশ্রয় হবে।

মেঘনা ক্লাউড দেশের ডিজিটাল ল্যান্ডস্কেপ বিপ্লব করতে প্রস্তুত। বিদেশী ক্লাউড পরিষেবার উপর নির্ভরতা কমাতে ডিজাইন করা, মেঘনা ক্লাউড বছরে প্রায় $4 বিলিয়ন ফরেক্স সাশ্রয় করবে বলে আশা করা হচ্ছে। এই ‘মেড ইন বাংলাদেশ’ ক্লাউডটি দ্রুত বর্ধমান জনসংখ্যার ক্রমবর্ধমান ডেটা প্রয়োজনীয়তা মেটাতে তৈরি করা হয়েছে, যা অত্যাধুনিক সমাধান প্রদান করে এবং দেশের অর্থনৈতিক অগ্রগতিতে উল্লেখযোগ্য অবদান রাখছে।

২০১৫ সালে মধ্যম আয়ের মর্যাদা অর্জনের পর থেকে, বাংলাদেশ ৬% বা তার বেশি জিডিপি প্রবৃদ্ধি ধরে রেখেছে। ১৭০ মিলিয়নেরও বেশি জনসংখ্যার ক্রমবর্ধমান জনসংখ্যার সাথে, যাদের মধ্যে ৫০% ২৫ বছরের কম, দেশটি নতুন উচ্চতায় পৌঁছানোর পথে রয়েছে। ২০২৫ সালের মধ্যে ৩৪ মিলিয়ন লোক মধ্যম ও ধনী শ্রেণীতে (ম্যাক) প্রবেশের অনুমান দ্রুত অর্থনৈতিক উত্থানের উপর জোর দেয়।
১৩০ মিলিয়নের একটি বিশাল ইন্টারনেট ব্যবহারকারী বেস,১৫০ মিলিয়নেরও বেশি বায়োমেট্রিক- নিবন্ধিত সিম কার্ড সহ, সরকার কর্তৃক ১৯০০+ এর বেশি ই-পরিষেবার বিকাশে ত্বরান্বিত করেছে, যার ফলে ব্যক্তিগত ডেটার যথেষ্ট পরিমাণে প্রবাহ ঘটেছে।

বাংলাদেশের ডিজিটাল ল্যান্ডস্কেপে ব্যক্তিগতভাবে শনাক্তযোগ্য তথ্যের(পিআইআই) বিস্তার সাইবার আক্রমণের হুমকিকে বাড়িয়ে দিয়েছে। ম্যালওয়্যার, ফিশিং,ডিডিওএস,এবং অন্যান্য সাইবার হুমকি বিশ্বব্যাপী বৃদ্ধি পাচ্ছে, গড় বাংলাদেশি ১০০ টিরও বেশি দুর্বলতার মুখোমুখি। এই চ্যালেঞ্জগুলির প্রতিক্রিয়া হিসাবে, মেঘনা ক্লাউড একটি স্বরযুক্ত সুরক্ষা মডেল প্রবর্তন করেছে। কাস্টম-ডিজাইন করা সিকিউরিটি অপারেশন সেন্টার (এসওসি) SIEM, WAF, VA, PT, থ্রেট ইন্টেলিজেন্স,
আইএম, প্ল্যাটফর্ম হার্ডেনিং, এনক্রিপশন এবং ডেটা ইন্টিগ্রিটি ম্যানেজমেন্ট সহ ২৭ টিরও বেশি উপাদান নিয়ে গর্ব করে, যা উন্নত নিরাপত্তার জন্য একীভূত পর্যবেক্ষণ এবং এনগেজমেন্ট মডেল প্রদান করে।

মেঘনা ক্লাউড সর্বোচ্চ স্তরের নিরাপত্তা এবং সম্মতি নিশ্চিত করতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। সাইবার নিরাপত্তা আইন এবং ডেটা সুরক্ষা বিলের মতো স্থানীয় প্রবিধানগুলি মেনে চলার পাশাপাশি, মেঘনা ক্লাউড PCI, ISO 27001, ISACA এবং ITIL সহ আন্তর্জাতিক মান মেনে চলে। এই অটুট প্রতিশ্রুতি মেঘনা ক্লাউডকে বাংলাদেশের সবচেয়ে সুরক্ষিত ক্লাউড ডেটা সেন্টার হিসেবে অবস্থান করে, যা দেশের মূল্যবান ডেটা সুরক্ষিত রাখতে নিরাপত্তা বৈশিষ্ট্যের একটি ক্রমবর্ধমান স্যুট অফার করে।

মেঘনা ক্লাউড বিডিসিসিএল এবং জেনেক্সট টেকনোলজিস লিমিটেডের মধ্যে একটি যৌথ উদ্যোগের ফলে গঠিত হয়েছে। এটি নিরাপদ, নির্ভরযোগ্য এবং মাপযোগ্য ক্লাউড সমাধান প্রদান করে বাংলাদেশের ডিজিটাল সার্বভৌমত্বে অবদান রাখার একটি ফ্ল্যাগশিপ উদ্যোগ। দেশের ডিজিটাল রূপান্তরের পথপ্রদর্শক হিসাবে, মেঘনা ক্লাউড নিরাপত্তার সর্বোচ্চ মান নিশ্চিত করার সাথে সাথে আধুনিক প্রযুক্তির সাথে ব্যবসা এবং ব্যক্তিদের ক্ষমতায়ন করেন।অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণকারীদের উমুক্ত প্রশ্ন-উত্তর পর্ব অনুষ্ঠিত হয়।

July 2024
S S M T W T F
 12345
6789101112
13141516171819
20212223242526
2728293031